Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » অপরাধ ও আইন » বিস্তারিত

ঢাবি ভিসির পদত্যাগের দাবি সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির

২০১৮ জুলাই ১০ ১৯:০৩:১৪
ঢাবি ভিসির পদত্যাগের দাবি সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে মিল আছে বলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি।

মঙ্গলবার দুপুরে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের শহীদ শফিউর রহমান হলে এক সংবাদ সম্মেলনে সমিতির পক্ষ থেকে এ দাবি জানানো হয়।

এ সময় আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও সম্পাদক এম মাহবুব উদ্দিন খোকন বক্তব্য রাখেন।

জয়নুল আবেদীন বলেন, কোটা সংস্কার নিয়ে ঢাবি কর্তৃপক্ষ বিশেষ করে ভাইস চ্যান্সেলরের বক্তব্য রহস্যজনক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাচ্যের অক্সফোর্ড। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম পৃথিবী বিস্তৃত।

তিনি বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে যখন সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা সোচ্চার এবং সব মহল যখন এই আন্দোলনকে যৌক্তিক আন্দোলন হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে, ঠিক তখনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সেই সাধারণ কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের জঙ্গী হিসেবে আখ্যা দিয়ে তাদের জঙ্গি সংগঠনের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এটা খুবই দুঃখজনক।

সমিতির সভাপতি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি সরকারের হীন স্বার্থ চরিতার্থে কোমলমতি ছাত্রছাত্রীদের কোটা আন্দোলনে জঙ্গি সম্পৃক্ততা উল্লেখ করে বিশ্ববিদ্যালয়কে কলংকিত করেছেন। যেখানে উপাচার্য এই ধরনের বক্তব্য রাখেন, সেখানে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা আন্দোলনকারীদের মারধর করবে এটাই স্বাভাবিক।

আন্দোলনকারীদের ওপর অমানবিক হামলা ও তাদের জঙ্গিবাদের দিকে ঠেলে দেয়া কোনো সচেতন নাগরিক মেনে নিতে পারে না উল্লেখ করে জয়নুল আবেদীন বলেন, ভিসির দায়িত্ব হচ্ছে এই বিশ্ববিধ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তার বিধান করা। অথচ তিনি তা না করে নানা রকম উসকানিমূলক বক্তব্য প্রদান করে সরকারের হীন স্বার্থ হাসিলে ব্যস্ত রয়েছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সবার প্রবেশের অধিকার আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ঢালাওভাবে ছাত্রছাত্রীদের জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ততা আছে ঘোষণা দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সাধারণ মানুষের প্রবেশাধিকার বন্ধ করার আদেশ উপচার্যের স্বেচ্ছাচারিতা বলে আমরা মনে করি।

তিনি বলেন, সত্য-মিথ্যা যাচাই না করে আন্দোলনকরী ছাত্রছাত্রীদের অহেতুক গ্রেফতার না করার জন্য এবং তাদের যৌক্তিক দাবি আদায়ে বাধা সৃষ্টি না করার জন্য আমরা অনুরোধ জানাচ্ছি।

এই আন্দোলনের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে জয়নুল আবেদীন বলেন, সরকারকে অনুরোধ করব কাল বিলম্ব না করে অনতিবিলম্বে দাবি মেনে নিয়ে গেজেট প্রকাশ করুণ। এছাড়া যারা গ্রেফতার হয়েছে তাদের মুক্তি এবং যারা ক্ষতিগ্রস্ত ও পঙ্গু হয়েছে তাদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করুন।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে জঙ্গিবাদি কর্মকাণ্ডের মিল আছে উল্লেখ করে ঢাবি ভিসির বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে সমিতির সভাপতি আরও বলেন, সুপ্রিমকোর্টের একজন বিচারপতি এবং সাবেক দুইজন ভাইস চ্যান্সেলরের সমন্বয়ে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে উক্ত ঘটনায় জড়িত ব্যাক্তিদের সংশ্লিষ্টতা অনতিবিলম্বে জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি করছি।

এ সময় তিনি দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিও দাবি করেন।

পাশাপাশি আন্দোলনকারীদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তা দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি।

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ঢাবি ভিসি আকতারুজ্জামানকে প্রমাণ করতে হবে যে ছাত্ররা জঙ্গি। জঙ্গি হিসেবে এখন কাউকে মেরে ফেলা হলে এর দায় ভিসিকে নিতে হবে। অবিলম্বে উপাচার্যের পদত্যাগ করা উচিত।

সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকনের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সমিতির সহ-সভাপতি গোলাম মোস্তফা, গোলাম রহমান ভূঁইয়া,কোষাধ্যক্ষ নাসরিন আক্তার, সিনিয়র সহসম্পাদক কাজী মো.জয়নুল আবেদীন, সদস্য মাহফুজ বিন ইউসুফ, ব্যারিস্টার শফিউল আলম মাহবুব, আহসান উল্লাহ, মেহেদী হাসানসহ বিএনপি সমর্থিত আইনজীবীরা।

(দ্য রিপোর্ট/এমএসআর/জুলাই ১০, ২০১৮)