Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » খেলা » বিস্তারিত

মালদ্বীপই সবার আগে ফাইনালে

২০১৮ সেপ্টেম্বর ১২ ২১:৪৯:৫৬
মালদ্বীপই সবার আগে ফাইনালে

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : বাংলাদেশের মাটি যেন পোয়াবারো মালদ্বীপের জন্য! ২০০৯ সালে এখানেই শেষবারের মতো সাফের ফাইনালে উঠেছিল দেশটি। দীর্ঘ সময় পর আবারও সেই কীর্তি ফিরে এলো, নিজেদের পঞ্চম সাফ ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ২০০৮ সালের সাউথ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নরা।

বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সাফ সুজুকি কাপের প্রথম সেমিফাইনালে ফেভারিট নেপালকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে প্রথম দল হিসেবে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে মালদ্বীপ। অথচ গ্রুপপর্বে টস ভাগ্যের সঙ্গে মাত্র এক পয়েন্ট নিয়ে সেমির টিকিট পেয়েছিল দেশটি।

সেই মালদ্বীপ বুধবার ম্যাচের ৯ মিনিটে নেপালকে দেখিয়েছে তাদের আসল জোর। ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেয়া ফ্রি-কিকে দলকে এগিয়ে নেন মালদ্বীপ অধিনায়ক আকরাম আব্দুল ঘানি।

ম্যাচের শুরু থেকেই গুড়িগুড়ি বৃষ্টি ছিল। সঙ্গে বজ্রপাত। সেই বৃষ্টি ম্যাচের ২৭ মিনিটের মাথায় প্রবল রূপ ধারণ করলে খেলাই বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন রেফারিরা। পরে খেলা আবারও মাঠে গড়ায় প্রায় আধঘন্টা পেরিয়ে।

বিরতি থেকে ফিরে খেলায় ছড়ি ঘুড়িয়েছে নেপাল। কর্দমাক্ত মাঠে সমস্যা হলেও গতিময় ফুটবলে মালদ্বীপ রক্ষণে আতঙ্ক ছড়িয়েছে দলটি। ৪০ মিনিটে বিমল ঘাত্রি মাগার দারুণ এক সুযোগ পেয়েও বল উঁচিয়ে মারেন গোলবারের উপর দিয়ে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও ছিল নেপালিদের প্রাধান্য। তবে ৫২ মিনিটে সেই প্রাধান্য ভেঙে কাউন্টার অ্যাটাকে দুর্দান্ত গতিতে উঠে গিয়ে দারুণ এক শট নিয়েছিলেন ইব্রাহিম হাসান, মালদ্বীপের এই তারকা গোল পেলে দেখা মিলতে পারত টুর্নামেন্টের সেরা একটি গোলের!

পরে একাধিকবার গোলের সুযোগ বের করেছে দুই দলই। বিশেষ করে নেপাল। কিন্তু সুযোগ তাদের কাজে আসেনি। বরং স্বল্প সুযোগ কাজে লাগিয়ে নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার ছয় মিনিটের মধ্যে জোড়া গোল করে লেপালিদের কফিনে পেরেক ঠুকে দেন ফরোয়ার্ড ইব্রাহিম ওয়াহিদ। নিশ্চিত করেন মালদ্বীপের পঞ্চম সাফ ফাইনাল।

(দ্য রিপোর্ট/একেএমএম/সেপ্টেম্বর ১২,২০১৮)