Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » শিক্ষা » বিস্তারিত

শিক্ষা যেন বাণিজ্যিক পণ্যে না হয়: রাষ্ট্রপতি

২০১৮ সেপ্টেম্বর ২৯ ১৮:৫২:০৭
শিক্ষা যেন বাণিজ্যিক পণ্যে না হয়: রাষ্ট্রপতি

রাজশাহী প্রতিনিধি: উচ্চশিক্ষা যেন সার্টিফিকেট সর্বস্ব না হয় কিংবা শিক্ষা বাণিজ্যিক পণ্যে পরিণত না হয় দেশ ও জাতির স্বার্থে তা সম্মিলিতভাবে নিশ্চিত করতে হবে। এটা করতে না পারলে দেশে উচ্চশিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বাড়বে এবং বিশ্ব প্রতিযোগিতায় আমরা পিছিয়ে পড়ব।

যুগের চাহিদাকে ধারণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠদান ও গবেষণা কার্যক্রম আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করতে হবে। বললেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দশম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বিকেল সাড়ে তিনটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়াম মাঠে এ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য বলেন, কারিক্যুলামভিত্তিক শিক্ষার পাশাপাশি মুক্তচিন্তা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা, জাতিগঠনমূলক কর্মকাণ্ড, সমকালীন ভাবনা, সাংস্কৃতিক চর্চা, খেলাধুলা ইত্যাদি সৃজনশীল কর্মকাণ্ড শিক্ষার্থীদের কেবল দক্ষ ও পরিপূর্ণই করে না; কূপমুণ্ডকতার বেড়াজাল থেকে মুক্ত করে।

তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্রের ভিতকে মজবুত করতে হলে দেশে সৎ ও যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তুলতে হবে। আর সেই নেতৃত্ব তৈরি হবে ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমেই। এ ক্ষেত্রে ব্যক্তি বা গোষ্ঠী স্বার্থের কোনও স্থান থাকবে না। ছাত্র রাজনীতির নেতৃত্ব থাকবে ছাত্রদের হাতে।

মনে রাখতে হবে সমাবর্তন শিক্ষার সমাপ্তি ঘোষণা করছে না, বরং উচ্চতর জ্ঞানভাণ্ডারে প্রবেশের দ্বার উন্মোচন করছে। তোমরা কেউ কেউ সে বিশাল জ্ঞানরাজ্যে অবগাহন করে বিশ্বকে আরও সমৃদ্ধ করবে। বলছিলেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এদিকে বাংলা সাহিত্যে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সমাবর্তনে প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক ও দেশবরেণ্য সাহিত্যিক সেলিনা হোসেনকে সম্মানসূচক ডক্টর অব লিটারেচার (ডি. লিট) ডিগ্রি তুলে দেন রাষ্ট্রপতি। পরে বিকেল পাঁচটায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে গান পরিবেশন করেন জনপ্রিয় শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন।

(দ্য রিপোর্ট/এমএসআর/সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৮)