Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » শেয়ারবাজার » বিস্তারিত

‘শেয়ারবাজারের স্বার্থে প্রয়োজনে বুক বিল্ডিং বন্ধ হবে’

২০১৮ অক্টোবর ০৭ ১৩:৩৩:২০
‘শেয়ারবাজারের স্বার্থে প্রয়োজনে বুক বিল্ডিং বন্ধ হবে’

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : শেয়ারবাজারের স্বার্থে প্রয়োজন হলে বুক বিল্ডিং পদ্ধতি স্থগিত বা বন্ধ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন। এসময় বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কাট-অফ প্রাইস নির্ধারনে যোগ্য বিনিয়োগকারীদেরকে যথাযথ দায়িত্ব পালনের জন্য অনুরোধ করেছেন তিনি।

রবিবার (০৭ অক্টোবর) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

খায়রুল হোসেন বলেন, বিএসইসি বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাদের স্বার্থে কাট-অফ প্রাইসের তুলনায় ১০ শতাংশ কমে শেয়ার দেওয়া হয়। এছাড়া তাদের স্বার্থে একটি কোম্পানির ৪৫ টাকার কাট-অফ প্রাইস ১০ শতাংশ ডিসকাউন্ট শেষে গাণিতিক হিসাবে ৪১ টাকা হলেও ৪০ টাকা করা হয় বলে উদাহরণ টানেন তিনি।

তিনি বলেন, প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) জন্য মিথ্যা হিসাব (ফলস অ্যাকাউন্ট) নিয়ে আসলে বিএসইসির কিছু করার থাকে না। এক্ষেত্রে নিরীক্ষক ও মার্চেন্ট ব্যাংকারদেরকে সঠিক দায়িত্ব পালন করতে হবে। যাতে প্রাথমিক পর্যায়ে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সুরক্ষা পায়। এছাড়া বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ বিঘ্নিত হয় এমন কোন কাজ না করার জন্য মার্চেন্ট ব্যাংকারদের প্রতি অনুরোধ করেন। একইসঙ্গে ৫ বছর লভ্যাংশ দেওয়ার সক্ষমতা নেই এমন কোম্পানিকে শেয়ারবাজার না আনার জন্য আহ্বান করেছেন।

বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ সুরক্ষার প্রধান উপাদান শিক্ষা বলে জানিয়েছেন খায়রুল হোসেন। তিন জানান, শিক্ষা ছাড়া কোটি কোটি টাকার বিনিয়োগের সুরক্ষাও বাধাগ্রস্থ হতে পারে। এছাড়া বিনিয়োগ সুরক্ষায় আইনকানুন পরিপালন, মনিটরিং জোরদার ও সঠিক রিপোর্টিংয়ের দরকার।

খায়রুল হোসেন বলেন, আইওএসকো’র সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিএসইসিও ২য়বারের মতো ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ’ পালন করতেছে। তবে বিএসইসি বিনিয়োগকারীদের জন্য আরও আগে থেকেই নানা ধরনের প্রোগ্রাম শুরু করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এছাড়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম।

(দ্য রিপোর্ট/এনটি/অক্টোবর ০৭, ২০১৮)