Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » রাজনীতি » বিস্তারিত

খালেদার চিকিৎসা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন: মওদুদ

২০১৮ অক্টোবর ০৭ ১৪:০২:০৬
খালেদার চিকিৎসা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন: মওদুদ

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তার আইনজীবী ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, আমরা দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে উদ্বিগ্ন। আমরা হাসপাতালের পরিচালককে হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী চিকিৎসা দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছি।

রোববার (৭ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুনের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে মওদুদ এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বলেন, আমরা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য গঠিত বোর্ডে ফিজিওথেরাপিস্ট, গাইনোলজিস্ট রাখার জন্য হাসপাতালের পরিচালককে আহ্বান জানিয়েছি।

তাছাড়া নেত্রীর সার্বক্ষণিক খোঁজ নিতে পরিচালককে অনুরোধ করেছি। তিনিও সু-চিকিৎসার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানান মওদুদ।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মওদুদ বলেন, আমরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে আসিনি। হাসপাতালে পরিচালকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। তার চিকিৎসার বিষয় নিয়ে আমরা কথা বলেছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল প্রমুখ।

এর আগে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের নেতৃত্বে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে প্রতিনিধি দলটি হাসপাতালে প্রবেশ করে।

এরপর প্রতিনিধি দলটি বিএনপি নেত্রীর সার্বিক বিষয়ে খোঁজ নিতে বিএসএমএমইউর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল হারুনের রুমে প্রবেশ করেন।

এর আগে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুসারে চিকিৎসার জন্য শনিবার বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে।

বিএসএমএমইউর মেডিসিন বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো আব্দুল জলিল চৌধুরীর নেতৃত্বে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

মেডিকেল বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. বদরুন্নেসা আহমেদ, রিউমাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক, কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, অর্থোপেডিক বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. নকুল কুমার দত্ত।

এর আগে চলতি বছরের ৭ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়েছিল। সেই সময় কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে ফের জেলাখানায় পাঠানো হয়।

ওই ঘটনার ছয় মাস পর শনিবার চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে ভর্তি হল। উচ্চ আদালতের নির্দেশে শনিবার খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বিএসএমএমইউতে আনা হয়।

প্রসঙ্গত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এর পর থেকে খালেদা জিয়া নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

(দ্য রিপোর্ট/এনটি/অক্টোবর ০৭, ২০১৮)