Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » স্বাস্থ্য » বিস্তারিত

'শিশু হাসপাতালে চিকিৎসকরা ঠিকমত উপস্থিত হন না'

২০১৯ জুন ১৮ ২৩:০০:৪৪
'শিশু হাসপাতালে চিকিৎসকরা ঠিকমত উপস্থিত হন না'

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : দুদক অভিযান চালিয়ে দেখেছে ঢাকা শিশু হাসপাতালের ডাক্তাররা নিয়ম অনুযায়ী উপস্থিত হন না। মঙ্গলবার ওই প্রতিষ্ঠানের এনফোর্সমেন্ট টিমের সদস্যদের অভিযানে তাদের যথাসময়ে উপস্থিত না হওয়ার প্রমাণ মিলেছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হাসপাতালের পরিচালকের প্রতি পরামর্শ দিয়েছেন টিমের সদস্যরা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ঢাকা শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা ও সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে অনিয়ম, ঘুষ, দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের সহকারী পরিচালক রাউফুল ইসলামের নেতৃত্বে মঙ্গলবার ওই অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে টিমের সদস্যরা মে ও চলতি জুন মাসের বায়োমেট্রিক হাজিরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেন। এতে ডাক্তারদের যথাযথ উপস্থিতি পরিলক্ষিত হয়নি। এ ছাড়া একজন ডাক্তারের দীর্ঘদিন অনুপস্থিতির তথ্য পাওয়া যায়।

অভিযানকালে জানা যায়, হাসপাতালের ঊর্ধ্বতন একজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের একটি তদন্ত প্রতিবেদন কর্তৃপক্ষের কাছে পেশ করা হলেও অদ্যাবধি এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। দুদক টিমের সদস্যরা অবিলম্বে ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী সংশ্নিষ্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

আদাবরে অভিযান

রাজউকের অনুমোদনবিহীন নকশা অনুযায়ী ভবন নির্মাণের অভিযোগে রাজধানীর আদাবরে অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানটি পরিচালনা করা হয় সহকারী পরিচালক জাহিদ কালামের নেতৃত্বে। যথানিয়মে পরিমাপ করে উত্তর আদাবরের বায়তুল আমান হাউজিং সোসাইটির ৬ নম্বর রোডের একটি বাড়িতে অনুমোদিত নকশার বাইরে বেশ কিছু অংশ নির্মিত হয়েছে বলে প্রমাণ পাওয়া যায়।

এ ছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন এমএলএসএসের নির্মাণাধীন একটি ভবনের অস্তিত্ব পাওয়া যায়। তিনি অবৈধভাবে অর্জিত অর্থে ওই ভবন নির্মাণ করছেন বলে টিমের সদস্যরা তথ্য পেয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানের অনুমতি চেয়ে কমিশনে প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছেন টিমের সদস্যরা।

পাসপোর্ট অফিসে অভিযান

একই দিনে গ্রাহক হয়রানির অভিযোগে চট্টগ্রাম পাসপোর্ট অফিসে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে জানা যায়, সাধারণ জনগণ যথাযথভাবে পাসপোর্টের ফরম পূরণ করে জমা দিতে গেলেও পাসপোর্ট অফিসের লোকজন তা জমা নেয় না। বিভিন্ন অজুহাতে হয়রানি করা হয়। দালালের মাধ্যমে আবেদন করা হলে সেবাগ্রহীতারা হয়রানির শিকার হয় না।

সরকারি চাল ক্রয়ে দুর্নীতি

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে সরকারি চাল ক্রয়ে দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রমাণ পাওয়া গেছে। সরেজমিন অভিযানে দুদক টিম জানতে পারে, ওই এলাকায় দুটি রাইস মিল বন্ধ থাকা সত্ত্বেও চাল ক্রয় দেখিয়ে অনৈতিকভাবে অর্থ পকেটে তুলছে মিল মালিক।

(দ্য রিপোর্ট/একেএমএম/জানুয়ারি ১৮,২০১৯)