Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » জলসা ঘর » বিস্তারিত

আইনি ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি তিশারও

২০২০ মে ১৮ ১৫:১৬:০৯
আইনি ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি তিশারও

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক: ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর সঙ্গে তার সদ্য সাবেক হওয়া স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির ডিভোর্সে তৃতীয় পক্ষ হিসেবে উঠে এসেছে আরেক জনপ্রিয় টিভি তারকা অভিনেত্রী তানজিন তিশার নাম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে সেটা প্রকাশও পেয়েছে।

এই ব্যাপারটি চোখে পড়া মাত্রই রবিবার রাতে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছেন অভিনেতা অপূর্ব। জানিয়েছেন, তার সংসার ভাঙার মধ্যে তৃতীয় কাউকে টানলে তিনি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এও বলেছেন, অদিতির সঙ্গে এখন বৈবাহিক সম্পর্ক না থাকলেও তিনি আজীবন তার সন্তানের মা।

কয়েক ঘণ্টা না যেতে এবার একই হুঁশিয়ারি দিলেন অপূর্বর বেশ কয়েকটি দর্শকপ্রিয় নাটকের নায়িকা তানজিন তিশাও। সোমবার সকালে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। সেখানেই তিনি ওই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন এবং সবাইকে যেকোনো গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধও করেছেন।

তিশা স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমি সাধারণত গুজবে কান দেই না। তবে এখন মনে করছি যে, কয়েকটি অনলাইন সংবাদপত্রে প্রকাশিত চলমান গসিপ বন্ধ হওয়া উচিত। দয়া করে আমার নামটি ব্যবহার করবেন না। এতে আমার সহশিল্পী এবং তার পরিবারের চলমান পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। আমি মনে করি, কেউ ইচ্ছাকৃতভাবিই আমার কুখ্যাতি তৈরি করছে। এরকম চললে আমি আইনি ব্যবস্থা নিব।’

প্রসঙ্গত, রবিবার বিকালে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়ে তাদের সংসার ভাঙার খবর প্রকাশ করেন অপূর্বর সদ্য সাবেক হওয়া স্ত্রী অদিতি। এই জুটির ৯ বছরের দাম্পত্য জীবনে জায়ান ফারুক আয়াশ নামে একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। অদিতি হচ্ছেন অপূর্বর দ্বিতীয় স্ত্রী। তার প্রথম স্ত্রী ছিলেন অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা।

২০১০ সালের ১৮ আগস্ট প্রভাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। মাত্র ছয় মাস টিকেছিল সে সংসার। প্রভার সাবেক প্রেমিক রাজিবের সঙ্গে তার অবৈধ সম্পর্কের কথা এবং আপত্তিকর কিছু ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ হওয়ায় ২০১১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তাকে ডিভোর্স দেন অপূর্ব। ওই বছরেরই ২১ ডিসেম্বর তিনি অদিতিকে বিয়ে করেন।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/১৮মে, ২০২০)