Airtel & Robi User Only

প্রচ্ছদ » শেয়ারবাজার » বিস্তারিত

অবশেষে ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী চীনা ২ প্রতিষ্ঠান

২০১৮ মে ০৫ ১৩:০৬:৫৬
অবশেষে ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী চীনা ২ প্রতিষ্ঠান

দ্য রিপোর্ট ডেস্ক : অবশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে ২৫ শতাংশ শেয়ারের মালিক হলো চীনের দুই কনসোর্টিয়াম। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এই চুক্তিতে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে। তবে কিছু শর্তে এই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এর মাধ্যমে ডিএসইর কৌশলগত পার্টনার হলো চীনের শেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জ ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের কনসোর্টিয়াম। কোম্পানি দুইটির হাতে গেলো ৪৫ কোটি সাড়ে ৯ লাখ শেয়ার।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, আরোপিত ওই শর্তের মধ্যে রয়েছে- এ সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম সিকিউরিটিজ আইন ও দেশের প্রযোজ্য অন্যান্য আইনসহ এক্সচেঞ্জেস ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন আইন, ২০১৩ এবং ডিএসইর ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন স্কিম অনুযায়ী পরিপালন করতে হবে। এই চুক্তি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া চুক্তি স্বাক্ষরের পরবর্তী এক বছরের মধ্যে সম্পন্ন করে কমিশনকে জানাতে হবে। আর কমিশনের পূর্ব অনুমতি ছাড়া চুক্তির শর্ত ও আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয়াদি পরিবর্তন করা যাবে না।

২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ব্যাপক ধসের পর বাজারে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও স্টেকহোল্ডারদের আধিপত্য কমাতে উদ্যোগ নেয় সরকার। এরপর ব্যবস্থাপনা থেকে মালিকানা আলাদা করতে ‘ডিমিউচ্যুয়ালাইশেন অ্যাক্ট-২০১৩’ আইন প্রণয়ন করা হয়।

আইন অনুযায়ী, ২০১৬ সালের মধ্যে কৌশলগত বিনিয়োগকারীদের কাছে স্টক এক্সচেঞ্জের সংরক্ষিত ২৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রির বিষয়ে সমঝোতা স্মারক সইয়ের বাধ্যবাধকতা ছিল। ডিএসই যোগ্য কৌশলগত বিনিয়োগকারী না পাওয়ায় তাদের দাবির প্রেক্ষিতে দফায় দফায় সময় বাড়ায় বিএসইসি।

এ অবস্থায় ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী হতে আগ্রহ প্রকাশ করে চীন ও ভারতের নেতৃত্বে দুটি পৃথক কনসোর্টিয়াম।

চীনের কনসোর্টিয়াম প্রতিটি শেয়ারের জন্য ২২ টাকা দরপ্রস্তাবের পাশাপাশি ৩ কোটি ৭০ লাখ মার্কিন ডলার বা ৩০৮ কোটি টাকা সমমূল্যের কারিগরি সহায়তা দেয়ারও প্রস্তাব দেয়। এর বিপরীতে শুধু ১৫ টাকা দামে শেয়ার কেনার প্রস্তাব জমা দেয় ভারত, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের তিন প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত জোট।

আগামী ১৪ মে রাজধানীর লা-মেরিডিয়ান হোটেলে শেয়ার বিক্রির এই চুক্তি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল হাশেম গণমাধ্যমকে জানান, পুঁজিবাজারের ইতিহাসে এটি অন্যতম একটি বিরল ঘটনা। পুঁজিবাজারে এর সফলতা পেতে একটু সময় লাগবে। তবে সফলতা আসবে বলেই মনে করেন তিনি।

(দ্য রিপোর্ট/এনটি/মে ০৫, ২০১৮)